আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:৫১ PM, ২৪ জুলাই ২০২০

পুলিশ ও স্থানীয়দের ধারণা, কামাল হত্যাকান্ডের সঙ্গে প্রতিপক্ষই জড়িত। বছরখানেক আগে কামাল মিয়ার এক চাচাতো ভাই খুন হন প্রতিপক্ষের লোকজনের হাতে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আসামিদের মধ্যে চেয়ারম্যানও রয়েছেন।

নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আজিজুর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কামাল মিয়া এক ব্যক্তির জানাজা পড়তে নবীগঞ্জ উপজেলার শিবগঞ্জ বাজারে আসেন। সেখান থেকে ফেরার পথে ওঁৎ পেতে থাকা একদল দুর্বৃত্ত তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

তারা তাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল ও এর পর সিলেট ওসমানি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে রাত ১২টার দিকে মারা যান কামাল মিয়া।

ওসি আরও বলেন, বড়ইউড়ি ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমানের সঙ্গে নিহত কামাল মিয়ার গোষ্ঠীগত বিরোধ রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে। পুলিশ ও স্থানীয়দের ধারণা, কামাল হত্যাকা-ের সঙ্গে প্রতিপক্ষই জড়িত থাকতে পারে।

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার বরইউরি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক কামাল মিয়াকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি হলদারপুর গ্রামের বাসিন্দা। গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্বের কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

আপনার মতামত লিখুন :