আজ শুরু হচ্ছে মহাকাশযাত্রা।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:২৯ PM, ৩০ জুলাই ২০২০

 

এবার লাল গ্রহ মঙ্গলে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার রোভার পার্সেভারেন্স। আজই শুরু হচ্ছে এর মহাকাশযাত্রা। এই মিশনে মঙ্গলের কয়েকটি স্থানের শিলা খনন করা হবে। রোভারে থাকা উন্নত বিশ্নেষক যন্ত্রের মাধ্যমে এসব নমুনা বিশ্নেষণ করা হবে। ২০২২ সালের মধ্যে জানা যাবে এর প্রাথমিক ফল। এ ছাড়া রোভার পার্সেভারেন্সের মাধ্যমে আহরিত বিভিন্ন শিলার নমুনা পৃথিবীতে আনার পরিকল্পনা রয়েছে। এ জন্য পরে ভিন্ন একটি মহাকাশযানও পাঠানো হবে। মঙ্গলে রোভার পার্সেভারেন্স পাঠানোর বিষয়টি মিশন আর্টেমিস প্রকল্পেরই অংশ। চলতি বছরের গত ১০ জানুয়ারি এ প্রকল্পের মাধ্যমে মঙ্গলে যাওয়ার জন্য ১৩ জনের নাম ঘোষণা করে নাসা। আশা করা হচ্ছে, মঙ্গল মিশনের অংশ হিসেবে ২০২৪ সালে তারা পদার্পণ করবেন চাঁদে। এরপর ২০৩০ সাল নাগাদ যাত্রা করবেন লাল গ্রহটির উদ্দেশে।

রোভার পার্সেভারেন্সের আগে গত ১৯ জুলাই মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ২৩ জুলাই চীন মঙ্গলের উদ্দেশে পৃথক নভোযান পাঠিয়েছে।

১৯৬৯ সালের জুলাই মাসেই প্রথম চাঁদে পা রাখে মানুষ। তার প্রায় ২৮ বছর পর ১৯৯৭ সালের ৫ জুলাই মঙ্গলের মাটি স্পর্শ করে রোভার সোজার্নার। এতে ছিল আলট্রা প্রোটন এক্স-রে স্পেক্ট্রোমিটার ও ইমেজার ফর মার্স পাথফাইন্ডার নামে দুটি ক্যামেরা, যাদের মাধ্যমে মঙ্গলের মাটি ও আকাশ পর্যবেক্ষণ করা হয়। এরপর ২০১২ সালে মঙ্গলে গিয়েছিল কিউরোসিটি রোভার। এটি লাল গ্রহটির ভূমিতে থাকা একটি খাদের ছবি তোলে। এ ছবি পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে বিজ্ঞানীরা ধারণা করেন, সাড়ে তিনশ’ কোটি বছর আগে প্রতিবেশী ওই গ্রহে যথেষ্ট পানির মজুদ ছিল। হয়তো এককালে প্রাণের অস্তিত্বও ছিল সেখানে।

১৯৮৪ সালে অ্যান্টার্কটিকায় ১২টি উল্ক্কাপিণ্ড উদ্ধার করা হয়। ৩৬০ কোটি বছর আগে মঙ্গল গ্রহ থেকে ছিটকে এরা পৃথিবীতে আসে। এর একটিতে মৃত ব্যাকটেরিয়ার কোষের মতো লম্বাটে সসেজ আকৃতির কিছু ক্যালসিয়াম কার্বনেটের খোলস খুঁজে পান নাসার বিজ্ঞানীরা। এ নিয়ে সে সময় তুমুল হৈচৈ শুরু হয়। যদি প্রমাণিত হয় এই খোলস আসলে ব্যাকটেরিয়ার, তাহলে পৃথিবীর বাইরে ভিন্ন গ্রহে প্রথম প্রাণের অস্তিত্ব মিলবে। তখন বিভিন্ন গ্রহে, উপগ্রহে মানুষের আবাস গড়ে তোলার আকাঙ্ক্ষা আর অবিশ্বাস্য মনে হবে না। তবে এ জন্য সবার আগে দরকার পানির অস্তিত্ব। আশার কথা, কিছুদিন আগে বিজ্ঞানীরা মঙ্গলে বরফের সন্ধান পেয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন :