আমেরিকাকে দায় নিতে হবে জঙ্গী বিমানের বিপদজনক মহাড়ার।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:০২ PM, ২৪ জুলাই ২০২০

গতকাল সন্ধ্যায় লেবাননগামী ইরানের একটি যাত্রীবাহী বিমানের চারপাশে বিপজ্জনক মহড়া দেয় দু’টি শত্রু জঙ্গিবিমান। এ সময় সংঘর্ষ এড়াতে ইরানি বিমানের পাইলট তার বিমানের উচ্চতা হঠাৎ করে কমিয়ে আনলে কয়েকজন যাত্রী আহত হন।তবে শেষ পর্যন্ত বিমানটি নিরাপদে বৈরুত বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইয়্যেদ আব্বাস মুসাভি আজ (শুক্রবার) ভোররাতে বলেছেন, এই ঘটনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে এবং ঘটনার পুরো চিত্র হাতে আসার পর প্রয়োজনীয় রাজনৈতিক ও আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিরিয়ার আকাশে লেবাননগামী যাত্রীবাহী বিমানের চারপাশে শত্রু জঙ্গিবিমানের বিপজ্জনক মহড়ার ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে তেহরান। তিনি আরো বলেন, জাতিসংঘে নিযুক্ত ইরানের স্থায়ী প্রতিনিধি মাজিদ তাখতে রাভানচি এ বিষয়ে এরইমধ্যে মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের কাছে মৌখিক অভিযোগ জানিয়েছেন।

রাভানচি জাতিসংঘ মহাসচিবকে বলেছেন, ইরানের যাত্রীবাহী বিমানটি তেহরানে ফিরে আসার পর যদি কোনোরকম সমস্যার মুখে পড়ে তাহলে তার দায় আমেরিকাকে নিতে হবে।

ইরানের এই বার্তা তেহরানে নিযুক্ত সুইস রাষ্ট্রদূতকেও জানানো হয়েছে। ইরানে মার্কিন দূতাবাস নেই এবং সুইজারল্যান্ডের দূতাবাস ইরানে মার্কিন স্বার্থ দেখাশুনা করে।

আপনার মতামত লিখুন :