ঈদের বাজারে চড়েছে এখন সবজি।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:৫৬ PM, ০৫ অগাস্ট ২০২০

 

ক্রেতারা বলছেন, যেকোনো ইস্যু পেলেই বিক্রেতারা পণ্যের দাম বাড়িয়ে দেন। মঙ্গলবার রাজধানীর রামপুরা, মগবাজার, মালিবাগ রেলগেট বাজার, খিলগাঁও এবং যাত্রাবাড়ী খুচরা বাজারগুলো ঘুরে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

সবচেয়ে বেশি বেড়েছে বেগুন, করলা ও উস্তার দাম। বাড়তি দাম নেওয়া হচ্ছে শাকেও। অন্যদিকে শাক-সবজির সঙ্গে দাম বেড়ে গেছে কাঁচা মরিচেরও। ঈদের আগে কাঁচা মরিচ কেজিতে ১৬০ থেকে ১৮০ টাকায় বিক্রি হলেও তা ফের ২০০ এর ঘরে গিয়ে ঠেকেছে।

দেশের বিভিন্ন জেলায় চলমান বন্যা আর ঈদের পর বাড়তি মালামাল না আসার অজুহাতে দাম বেড়েছে বিভিন্ন সবজির। বাজারগুলোতে আকার ও সবজিভেদে পাঁচ থেকে ৪০ টাকা পর্যন্ত বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন সবজি।

অপরিবর্তিত আছে মসলাজাতীয় পণ্য আদা, রসুন, পেঁয়াজ, চাল, ডাল ও ভোজ্য তেলের দাম। এদিকে সবজির উচ্চমূল্য নিয়ে মিশ্র-প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে। বিক্রেতারা বলছেন, বন্যার পাশাপাশি ঈদের পর বাজারগুলোতে সংকট থাকায় বাড়তি দাম নেওয়া হচ্ছে।

মালিবাগ বাজারের এক বিক্রেতা বলেন, কাঁচামাল আমদানি নির্ভর। এখন বন্যার পাশাপাশি ঈদের কারণে বাজারে মালামাল কম আসছে। এতে দাম বেড়েছে সবজির। তবে পণ্যের সরবরাহ বাড়লে দাম কম আসবে বলেও জানান তিনি। তবে এ বিক্রেতার সঙ্গে একমত নন এ বাজারের ক্রেতা রাসেল। তিনি বলেন, কোনো ইসু্য পেলেই বিক্রেতারা পণ্যের দাম দ্বিগুণ বাড়িয়ে দেন। এখন বাজারের সবজির সরবরাহ কমে গেছে। একইসঙ্গে ক্রেতাও কমেছে এতে দাম বাড়ার কোনো কারণ দেখছি না। বাংলানিউজ

আপনার মতামত লিখুন :