উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন কোমায় আছেন।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:৫২ PM, ২৫ অগাস্ট ২০২০

 

নিউইয়র্ক পোস্ট জানিয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট কিম দায়ে জংয়ের অধীনে কর্মরত চ্যাং সং মিন তার দেশের গণমাধ্যমকর্মীদের বলেছেন, কিম কোমায় আছেন। তবে তার জীবনের অবসান ঘটেনি।

অবশ্য কিম জং উনের অসুস্থতা কিংবা মৃত্যুর গুজব ছড়ানোর বিষয়টি নতুন নয়। এর আগে গত এপ্রিল মাসে দীর্ঘদিন ধরে তাকে জনসম্মুখে না দেখা যাওয়ার পর মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে। অবশেষে একটি সার কারখানা উদ্বোধনের সময় প্রকাশ্যে আসেন তিনি।

তার বোন কিম ইয়ো জং দেশ পরিচালনায় সহায়তা করতে প্রস্তুত রয়েছেন। এমন আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার একজন কূটনীতিক। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক পোস্টের এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়ার গোয়েন্দারা দাবি করেন, উত্তর কোরিয়ার সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী কিম জং-উন নিজের ওপর চাপ কমাতে তার বোন ও অন্যান্যদের ওপর বেশকিছু নীতি-নির্ধারণী দায়িত্ব দিয়েছেন।

এর কয়েকদিনের মাথায় কিমের গুরুতর শারীরিক পরিস্থিতির গুঞ্জন শোনা গেল। কিমের বোন ইয়ো-জং এখন প্রকৃতপক্ষে দেশটির ‘দ্বিতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি বলেই ধারণা দক্ষিণের গোয়েন্দা সংস্থার।

চ্যাং বলেন, উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতার পদে সম্পূর্ণ উত্তরাধিকার কাঠামো গঠন করা হয়নি। দীর্ঘকাল ধরে তো আর শূন্যতা বজায় রাখা যায় না। সে কারণে কিম জং উনের বোন কিম ইয়ো জংকে সামনে নিয়ে আসা হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :