ট্রিপল মার্ডার রহস্য এখনও উদঘাটন হয়নি।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:১০ PM, ০৫ অগাস্ট ২০২০

 

চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে খুকুর বাবা আবুল কালাম সর্দার মঠবাড়িয়া থানায় হত্যা মামলা করেন। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে সংঘটিত এ হত্যাকান্ডের ক্লু বের করতে সিআইডি, ডিবি, পিবিআই,র্ যাবসহ থানা পুলিশের একাধিক দল কাজ করছে।

পিরোজপুরের পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান বলেন, ঘটনার পর থেকে র‍্যাব, সিআইডি, পিবিআই, ডিবিসহ থানা পুলিশের পাঁচটি টিম সার্বক্ষণিক কাজ করছে। দ্রম্নত সময়ের মধ্যে এ তিন খুনের নেপথ্যের কারণ ও খুনিদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারে সক্ষম হবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় চাঞ্চল্যকর অটোচালক আয়নাল হক (৩৫), তার স্ত্রী খুকু মনি (২৫) ও তাদের একমাত্র শিশু কন্যা আশফিয়া হত্যার পাঁচ দিন পার হলেও ঘটনার নেপথ্যের কারণ বের করতে পারেনি পুলিশ। ত্রিপল মার্ডারের পর নিহতের ভাই হেলাল হাওলাদার, চাচা আ. মালেক হাওলাদার, চাচাতো ভাই বেলাল, প্রতিবেশী মাহবুব, আ. রহিম ও শামিমকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ।

এলাকাবাসী জানায়, আয়নালের বাবা রত্তন হাওলাদার মারা যাওয়ার পর তার ছেলেদের মধ্যে ভালো সম্পর্ক ছিল। আয়নালের ছোট ভাই মালয়েশিয়া প্রবাসী জয়নাল (২৮) দুই মাস আগে প্রবাসেই মারা যান। এক মাস আগে দেশে গ্রামের বাড়িতে তার লাশ দাফন করা হয়।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি আ.জ.ম মাসুদুজ্জামান মিলু বলেন, ট্রিপল মার্ডারের নেপথ্যের সুস্পষ্ট কারণ পাওয়া না গেলেও উলেস্নখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে আব্দুল মালেক ও শামিমকে মঙ্গলবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :