ডক্টর সাবরিনা ও আরিফুল হক চৌধুরী সহ ৮ জনের বিরুদ্ধে বিচার শুরু হয়েছে।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:০৯ PM, ২১ অগাস্ট ২০২০

 

করোনার ভুয়া রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগে গত ১৫ জুন কামাল হোসেন নামে এক ভুক্তভোগী রাজধানীর তেজগাঁও থানায় মামলা করেন। তদন্ত শেষে গত ৫ আগস্ট ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে সাবরিনা ও আরিফসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে।

ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলী। চার্জশিটে সাবরিনা ও আরিফকে মূল হোতা হিসেবে উল্লেখ করা হয়। বাকিদের চিহ্নিত করা হয় সহযোগী হিসেবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম সরাফুজ্জামান আনছারী তাদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন। এর মধ্য দিয়ে করোনার ভুয়া রিপোর্ট দিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার মামলার বিচার শুরু হলো।

জেকেজি হেলথ কেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা চৌধুরী ও একই প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী আরিফুল হক চৌধুরীসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে বিচার শুরু হয়েছে।

গতকাল ৮ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানি হয়। শুনানি শেষে সাবরিনা, আরিফুল এবং অন্য আসামিদের কাছে আদালত জানতে চান- তারা দোষী না নির্দোষ। জবাবে তারা প্রত্যেকে নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন।

একই সঙ্গে ন্যায়বিচার প্রত্যাশা করেন তারা। মামলায় অভিযুক্ত অন্য আসামিরা হলেন, আবু সাঈদ চৌধুরী, হুমায়ূন কবির হিমু, তানজিলা পাটোয়ারী, বিপ্লব দাস, শফিকুল ইসলাম রোমিও এবং জেবুন্নেসা।

আপনার মতামত লিখুন :