পাঠ্যপুস্তক থেকে সরিয়ে নিল টিপু সুলতানের কাহিনী।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:৪৬ PM, ৩০ জুলাই ২০২০

 

টিপু সুলতানের ইতিহাসই কেন সরিয়ে ফেলা হলো, এই ব্যাপারে প্রশ্ন করলে কর্মকর্তারা জানান, ষষ্ঠ ও দশম শ্রেণিতে কিন্তু তা রেখে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু টিপু সুলতান বর্তমান হিন্দুত্ববাদী শাসনাধীন ভারতে এক বিতর্কিত নাম, যদিও ইংরেজদের বিরুদ্ধে তার রয়েছে গৌরবজ্জ্বল প্রতিরোধের ইতিহাস।

কয়েক মাস আগে কিছু বিজেপি নেতার চাপের মুখে টিপু সুলতানকে বীর হিসেবে পাঠ্যপুস্তকে উপস্থাপন করা নিয়ে বিতর্ক উঠে। সেই প্রেক্ষিতে সরকার সিদ্ধান্ত নেয় এই বিষয়ে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করার। তবে কমিটি সিদ্ধান্ত নেয়, টিপু সুলতানের ইতিহাস গুরুত্বপূর্ণ বিধায় তা পাঠ্যপুস্তকে অগ্রাহ্য করা উচিৎ হবে না।

কভিড ১৯ মহামারির কারণে ২০২০-২১ সালের সিলেবাস কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয় কর্ণাটক সরকার। তারই অংশ হিসেবে ওই অধ্যায় সরিয়ে নেওয়া হয় বলে জানানো হয়েছে সরকারিভাবে। এ খবর দিয়েছে এনডিটিভি।

বর্তমান ভারতের মাইশুরের শাসক ছিলেন টিপু সুলতান। ইংরেজদের বিরুদ্ধে আঠারো শতাব্দিতে তার পিতা হায়দার আলি ও তার বীরত্বের কাহিনী সুবিদিত। এতদিন ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের পাঠ্যবইয়েও সেই ইতিহাস ছিল। তবে সম্প্রতি সপ্তম শ্রেণির সামাজিক বিজ্ঞান বই থেকে হায়দার আলি ও টিপু সুলতানের কাহিনী সম্বলিত অধ্যায় সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

খবরে বলা হয়, সপ্তম শ্রেণিতে টিপু সুলতানের কাহিনী সরিয়ে নেওয়া হলেও, ষষ্ঠ ও দশম শ্রেণির বইয়ে তা রাখা হয়েছে। বার্তাসংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া পিটিআই জানায় পুনর্গঠিত সিলেবাস কর্ণাটক পাঠ্যপুস্তক সোসাইটির ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়েছে।

মূলত মহামারির কারণে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের সিলেবাস কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয় শিক্ষা বিভাগ। ওই বছর ১২০ দিন ক্লাস হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :