বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনিশ্চিত হয়ে পড়ল।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:৫০ PM, ২১ অগাস্ট ২০২০

 

২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের উদ্যোগ নিয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন। তবে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা, জাহাঙ্গীরনগর, রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো প্রথম সারির বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এই পদ্ধতিতে অংশগ্রহণ না করার ঘোষণা দেয়।

এই ৫ বিশ্ববিদ্যালয় তাদের একাডেমিক কাউন্সিলে আগের নিয়মে পৃথকভাবে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে বাইরে রেখেই বাকীদের নিয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে কমিশন।

এসব সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে চারটি গুচ্ছে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। গুচ্ছগুলো হচ্ছে- কৃষি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, প্রকৌশল ও সাধারণ। সাধারণ গুচ্ছে বিজ্ঞান, কলা ও ব্যবসায় শিক্ষায় তিনটি পরীক্ষা।

বেশ কয়েকবছর ধরে আলোচনার পর এবার সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়েছিল।

নতুন এই পদ্ধতি কার্যকর করতে চলতি বছরের প্রথম দিকে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের নেতৃত্বে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ও তাদের প্রতিনিধিরা কয়েক দফা বৈঠকও করেছেন। এসব বৈঠক শেষে প্রথম সারির ৫টি বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া বাকি সবগুলোতেই গুচ্ছ পদ্ধতি ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এজন্য কয়েকটি কমিটি গঠন করে দেয় ইউজিসি। তবে করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে অনিশ্চয়তায় পড়ে গেছে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মহামারির কারণে নতুন এই ভর্তি পদ্ধতির জন্য গঠিত কমিটিগুলো ঠিকভাবে কাজ করতে পারেনি। ফলে এ বছর থেকেই এই পদ্ধতিতে পরীক্ষা গ্রহণের বিষয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা।

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় কৃষিতে সাতটি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে ১১টি, প্রকৌশলে তিনটি এবং সাধারণ নয়টি বিশ্ববিদ্যালয় অংশ নেয়ার বিষয়ে নিশ্চিত করেছিল।

আপনার মতামত লিখুন :