বিস্ফোরণ নিয়ে দেশে এবার সর্তকতা।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:৪৬ PM, ১৫ অগাস্ট ২০২০

 

গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধান বিস্ফোরক পরিদর্শক মো. মঞ্জুরুল হাফিজ জানান, বিদেশ থেকে আমদানি করা বিস্ফোরক দ্রব্য অসতর্ক অবস্থায় হ্যান্ডেলিংয়ের কোনো সুযোগ নেই।

এ বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বনের জন্য সব স্থল ও সমুদ্রবন্দর, কাস্টমস, জেলা প্রশাসক এবং বিভাগীয় কমিশনারদের চিঠি দেওয়া হয়েছে।

সেখানে বলা হয়েছে, বন্দর এলাকায় যাতে কোনো অননুমোদিতভাবে বিস্ফোরকদ্রব্য আনলোড করে রাখা না হয়। অনুমোদনবিহীন গুদামে রাখা না হয়। এ বিষয়ে সাবধানতার জন্য এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের কিছু কিছু তো আমদানি করা হয়ে থাকে। মেডিক্যাল ও খনি পারপাসে এখানে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট ব্যবহার হয়। তাই বন্দরগুলোয় বিশেষভাবে নজর দিয়েছি।

বন্দরে নির্দেশের পাশাপাশি এ নির্দেশনার অনুলিপি জেলা প্রশাসক, বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে, কাস্টমস অফিসে পাঠানো হয়েছে।

লেবাননের বৈরুত বন্দরে বিস্ফোরণে দুশতাধিক মানুষের প্রাণহানির ঘটনার পর বাংলাদেশের বিস্ফোরক আমদানি ও মজুদের বিষয়ে তথ্য চেয়েছে বিস্ফোরক অধিদপ্তর।

কোনো অবস্থায়ই যেন দেশের কোনো স্থল ও সমুদ্রবন্দরে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট গুদামজাত না করা হয়, এ বিষয়ে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে বলেছে সরকারি এই সংস্থা।

এ ব্যাপারে সব স্থল ও সমুদ্রবন্দর কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়েছে বিস্ফোরক অধিদপ্তর। সেই সঙ্গে চলতি বছরে চারটি সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কী পরিমাণ বিস্ফোরক মজুদ রয়েছে এবং কী পরিমাণ ব্যবহার হয়েছে তা জানতে চেয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :