মেজর সিনহা হত্যা মামলা

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:৪৭ PM, ৩১ অগাস্ট ২০২০

 

মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় অপরাধ স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন অন্যতম প্রধান আসামি লিয়াকত আলী।

আসামি লিয়াকত আলী টেকনাফের বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের বরখাস্ত হওয়া ইনচার্জ এবং টেকনাফ থানার পরিদর্শক। তৃতীয় দফায় তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুরের দুদিন পর রোববার কক্সবাজারে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহর আদালতে তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিলেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা র‌্যাবের সিনিয়র এএসপি খাইরুল ইসলাম বলেন, লিয়াকত আমাদের কাছে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে অনেক তথ্য-উপাত্ত দিয়েছেন। আশা করছি, আদালতেও তিনি সত্য ঘটনাটাই উপস্থাপন করেছেন।

নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে. আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে লিয়াকত স্বীকার করে নিয়েছেন তার গুলিতে মেজর সিনহা নিহত হয়েছেন। বিচারকের খাস কামরায় সাড়ে চার ঘন্টার জবানবন্দিতে লিয়াকত সেই রাতের ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ দিয়েছেন। বলেছেন সিনহা হত্যার আগে এবং পরের সব ঘটনা। জানিয়েছেন কিভাবে তিনি গুলি করেছেন, এই ঘটনার পরিকল্পনার সাথে আর কে কে জড়িত।

রোববার দুপুর পৌনে ১২টায় কড়া নিরাপত্তায় লিয়াকতকে আদালতে নিয়ে আসে র‌্যাব। এই সময়ে আদালত প্রাঙ্গণেও নেওয়া হয় কড়া নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা। জবানবন্দি দেওয়ার জন্য লিয়াকতকে সরাসরি নেওয়া হয় বিচারক তামান্না ফারাহ’র খাস কামরায়। সেখানে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত একটানা জবানবন্দি গ্রহণ করেন বিচারক।

র‌্যাব সূত্র জানায়, শুক্রবার তৃতীয় দফায় রিমান্ড মঞ্জুর করা হয় ওসি প্রদীপ, এসআই লিয়াকত ও এএসআই নন্দ দুলালের। রিমান্ডে নেওয়ার দুদিন পরই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিলেন লিয়াকত। সোমবার রিমান্ডের শেষ দিনে ওসি প্রদীপ এবং নন্দ দুলালকে আদালতে তোলা হবে।

সূত্র জানায়, আসামি নন্দ দুলালও স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হয়েছেন। তবে ওসি প্রদীপ ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিতে সম্মত কি-না তা জানা যায়নি।

আপনার মতামত লিখুন :