লেন্সের দুই খেলোয়াড় দাঁড়িয়েছিলেন ডি-বক্সের ঠিক বাইরে।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:৪০ PM, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০

 

করোনা আক্রান্ত খেলোয়াড়দের বাইরে রাখায় রীতিমতো দ্বিতীয় একাদশ নামাতে হয়েছিল টুখেলকে। যারা মাঝমাঠের খেলা নিয়ন্ত্রণ করলেও পারেনি ক্ষুরধার আক্রমণ করতে। যে কারণে ম্যাচে প্রায় ৮০ ভাগ সময় বল দখলে রাখলেও, বলার মতো আক্রমণ হয়েছে মাত্র একটি।

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের নতুন মৌসুম শুরু হয়ে গেছে আরো আগেই। তবে প্রথম রাউন্ডে খেলেনি লিগের হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন প্যারিস সেইন্ট জার্মেই। উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে ফাইনালে খেলায় তাদের দেয়া হয়েছিল বাড়তি বিশ্রামের সুযোগ। কিন্তু এতে খুব একটা লাভ হয়নি থমাস টুখেলের শিষ্যদের।

নতুন মৌসুমের প্রথম ম্যাচটা জিততে পারেনি নেইমার-এমবাপেদের দল। এর পেছনে অবশ্য করোনাভাইরাসের একটি কারণও বলা যায়। কেননা নেইমার, এমবাপে, ডি মারিয়া ও লেওনার্দো পারেদেসসহ দলটির মোট ৭ খেলোয়াড় আক্রান্ত করোনায়। তাদের ছাড়া খেলতে নেমে প্রথম ম্যাচে লেন্সের কাছে ০-১ গোলে হেরেছে পিএসজি।

অন্যদিকে বল দখলে পিছিয়ে থাকলেও, হুটহাট আক্রমণে উঠে গেছে নিজেদের মাঠে খেলতে নামা লেন্স। যার সুফল তারা পেয়েছে ম্যাচের ৫৭ মিনিটের সময়। গোলরক্ষক মার্চিন বুকার হাস্যকর এক ভুলে গোল হজম করে পিএসজি।

লেন্সের দুই খেলোয়াড় দাঁড়িয়েছিলেন ডি-বক্সের ঠিক বাইরে। তাদের মাঝখান দিয়েই সতীর্থের উদ্দেশ্যে পাস বাড়ান বুকা। কিন্তু সেটি এতটাই দুর্বল ছিল যে সহজেই পেয়ে যান লেন্সের ক্যামেরুনিয়ান ফরোয়ার্ড ইগনেসিয়া। জোরালো এক শটে বল পাঠান জালে। জয় নিশ্চিত হয় লেন্সের।

আপনার মতামত লিখুন :