শিবচরের বিদ্যালয়টি পদ্মার ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে যাচ্ছে।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:২০ PM, ২৪ জুলাই ২০২০

বিদ্যালয়টি ছিল চরাঞ্চলের একমাত্র দৃষ্টিনন্দন তিনতলা ভবনসহ আধুনিক সুবিধা সমৃদ্ধ একটি উচ্চ বিদ্যালয়। পদ্মার আগ্রাসী ভাঙনে যে কোন সময় পুরো বিদ্যালয় ভবনটি পানির নিচে তলিয়ে যাবে। দৃষ্টি নন্দন বিদ্যালয় ভবনটি নদীতে চোখের সামনে ভেঙে নিয়ে যাওয়ার দৃশ্য কোন মতে মানতে পারছে না স্থানীয় শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ।

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার বন্দরখোলা ইউনিয়নের চরাঞ্চলের বাতিঘরখ্যাত নূরুদ্দিন মাদবরেরকান্দি গ্রামে অবস্থিত এস ই এস ডি পি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩ তলা দৃষ্টি নন্দন ভবনটি হেলে পড়েছে পদ্মা নদীর আগ্রাসী ভাঙনের ফলে।

বুধবার মধ্যরাতে বিদ্যালয়টির মাঝ বরাবর দ্বিখন্ডিত হয়ে হেলে পরে নদীর দিকে। বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত বিদ্যালয়টি নদীর দিকে আরো হেলে পরেছে।বিদ্যালয়টি ২০০৯ সালে নূরুদ্দিন মাদবরেরকান্দি এস.ই.এস.ডি.পি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়েছে।

বন্দোরখোলা ইউনিয়নের চরাঞ্চলে স্থাপিত এই বিদ্যালয়টির কারণে শিবচর উপজেলার বন্দোরখোলা ইউনিয়নের মমিন উদ্দিন হাওলাদারকান্দি, জব্বার আলী মুন্সীকান্দি, বজলু মোড়লের কান্দি, মিয়া আজম বেপারীর কান্দি, রহমত হাজীর কান্দি, জয়েন উদ্দিন শেখ কান্দি, মসত খাঁর কান্দিসহ প্রায় ২৪ টি গ্রাম ও ফরিদপুর জেলার সদরপুর উপজেলার চর নাসিরপুরসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের ছেলে-মেয়েরা এই বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতো।

এদিকে পদ্মায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় চরাঞ্চলে ভাঙনের তীব্রতা আরো বেড়েছে। ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ স্থানে ছুটে যাচ্ছে চরাঞ্চলের অসংখ্য মানুষ। এছাড়াও পানিবন্দী হয়ে পরেছে হাজার হাজার মানুষ। ঘরবাড়ি তলিয়ে যাওয়ায় গবাদি পশু নিয়ে চরম দুর্ভোগে দিন কাটাচ্ছে চরাঞ্চলের হাজার হাজার মানুষ।

আপনার মতামত লিখুন :