সেপটিক ট্যাংকে পড়ে দুইজন নিহত।

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:৪২ PM, ২৪ জুলাই ২০২০

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সাব অফিসার হাফিজুর রহমান বলেন, সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসের (কার্বন মনোক্সাইড) বিষক্রিয়ায় ওই দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।

নিহতরা হলেন, এরশাদুল ইসলামের মেয়ে স্কুলছাত্রী আসমা খাতুন (১৫) ও কালিয়াবকরী গ্রামের মতলেব আলীর ছেলে দোকান কর্মচারী হাসিবুল ইসলাম (২৫)।

স্থানীয় লোকজন জানান, বিকাল সাড়ে চারটার দিকে আসমা সেপটিক ট্যাংকে বৃষ্টির জমে থাকা পানি বালতি দিয়ে তুলতে গিয়ে পা পিছলে পড়ে যায়। ট্যাংকির ভেতরে সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়লে খবর পেয়ে দোকান কর্মচারী হাসিবুল তাঁকে উদ্ধারে নামেন এবং তিনিও সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন।

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গায় একটি বাড়ির নির্মাণাধীন সেপটিক ট্যাংকে পড়ে এক স্কুলছাত্রীসহ ২ জন মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে মুদি ব্যবসায়ী এরশাদুল ইসলামের বাড়িতে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

খবর পেয়ে দর্শনা থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল উদ্ধার অভিযান শুরু করে এবং টানা একঘন্টার চেষ্টায় সেপটিক ট্যাংকে পড়ে যাওয়া ২ জনকে উদ্ধার করে। উদ্ধারের পর দেখা যায় দু’জনই মারা গেছেন।

আপনার মতামত লিখুন :