স্ত্রীকে হত্যা করলেন স্বামী

Samia RahmanSamia Rahman
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:২৮ PM, ১২ অগাস্ট ২০২০

 

পলাশের সঙ্গে রহিমার ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে রহিমা অভিমান করে বাবার বাড়ি যাওয়ার প্রস্তুতি নেন। এসময় পলাশ তার স্ত্রীকে জোরপূর্বক ঘরের ভেতর নিয়ে দরজা বন্ধ করে দেন। রহিমার গলায় ধারাল ছুরি ধরে হত্যা করবে বলে ভয় দেখায় পলাশ। এ সময় রহিমার চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে ঘরে প্রবেশের চেষ্টা করেন। কিন্তু কেউ ঘরে প্রবেশ করলে রহিমাকে হত্যার পর নিজে আত্মহত্যার করবেন বলে পলাশ হুমকি দেন। ফলে কেউ ঘরে প্রবেশ করতে সাহস পায়নি।

এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুর রশিদ, গাজিউর রহমান ও ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালাসহ একাধিক পুলিশ কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে পৌঁছান। তারা নানা কৌশলের পর অবশেষে ঘরের সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে রাত ৮টার দিকে রহিমাকে উদ্ধার করেন ও তার স্বামী পলাশকে ছুরিসহ গ্রেপ্তার করেন।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, ‘পাঁচ ঘণ্টা অভিযানের পর পলাশ ও রহিমা দম্পতির জীবন রক্ষা করা গেছে। এ ঘটনায় রহিমার পক্ষ থেকে কেউ বাদী না হওয়ায় পলাশকে ১৫১ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। রহিমা খাতুনকে তার মা-বাবার জিম্মায় দেওয়া হয়েছে।’

আপনার মতামত লিখুন :