রিয়া চক্রবর্তীর জামিনের আবেদনে আদালতে শুনানি।

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:৩৭ PM, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০

 

রিয়ার বিরুদ্ধে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর মূল অভিযোগ, তিনি মাদক কারবারের সঙ্গে যুক্ত। বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে, এই অভিযোগ তিনি খারিজ করে দিলেও, তাঁর নাম ঘিরে তৈরি হওয়া বিতর্কের পাল্টা হিসেবেই সম্ভবত আদালতের কাছে বলিউড নিয়ে এমন দাবি করলেন রিয়া। ঘটনা হল, বলিউডের মাদক-যোগ এবং তা ঘিরে শোরগোল নতুন কিছু নয়।

গোয়েন্দা সূত্র মারফত আগেই জানা গিয়েছিল যে, জেরার সময় বলিউডের এমন একাধিক তারকার নাম নিয়েছেন অভিনেত্রী, যাঁদের মাদক-যোগ রয়েছে।

তদন্ত করলে দেখা যাবে বলিউডের ৭০ শতাংশ তারকাই হয় মাদক নেন, নয়তো মাদক আনান। সূত্রের খবর, জামিনের আবেদনে এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করা হয়েছে রিয়া চক্রবর্তীর তরফে, আজ যে আবেদনের প্রেক্ষিতে রায় দেবে মুম্বইয়ের বিশেষ আদালত।

তাঁদের কয়েকজন ২০০ কোটির ক্লাবের সদস্য বলেও শোনা যাচ্ছিল। কিন্তু, জামিনের আবেদনে করা তাঁর এই দাবি আগের সবকিছুকেই ছাপিয়ে গেল। এখানেই শেষ নয়! আবেদনপত্রে রিয়ার আরও বক্তব্য, ‘আমার বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে একফোঁটাও মাদক উদ্ধার করতে পারেননি গোয়েন্দারা।

তা সত্ত্বেও আমাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং হেনস্থা করা হচ্ছে। গোটাটাই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। কী সেই উদ্দেশ্য বা এর নেপথ্যে কারা রয়েছেন বলে তাঁর সন্দেহ, সে বিষয়ে অবশ্য রিয়া কিছুই খোলসা করেননি।